Jio-তে মেতে রয়েছে জেন ওয়াই

792

সম্প্রতি বেশ কয়েকটা কথার প্রচলন হয়েছে৷ এই যেমন, জেন-ওয়াই এর সদস্যরা নাকি এখন রাস্তা ঘাটে নয় ৷ ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপেই বেশি আড্ডা মারতে পছন্দ করে ৷ খেতে বসে ‘Ping’ ৷ সুতে গিয়ে ‘Status’ ৷ আর ঘুম থেকে উঠে ? আগের রাতের আপলোডে কটা লাইক আর কটা কমেন্ট পড়ল তা একবার চোখ বুলিয়ে নেওয়া ৷ আর যদি সেই স্ট্যাটাস কোনও ভাবে একটা দুটো শেয়ার হয়ে যায় , তাহলে কোনও কথাই নেই ৷ সক্কালটা একেবারে ঝাক্কাস কাকা ! তবে জেন-ওয়াইয়ের শুধু সকাল নয় ৷ সকাল-বিকেল, দুপুর-সন্ধ্যা এমনকি রাত-বিরেতেও যেন মুডটা ঝাক্কাসই থাকে তা নিয়ে টেলিকম সংস্থাগুলোর কিন্তু রাতের ঘুম সুন্দরবনের জঙ্গলে৷ কে কাকে টেক্কা দিয়ে প্রত্যেকটা স্মার্ট ফোন, ট্যাব, ‘ল্যাপি’, আইফোনে পৌঁছে যেতে পারে সেটা নিয়েই চলছে লড়াই ৷ অনেকে আবার প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে গিয়ে একেবারে বিনে পয়সাতেই পরিষেবা দিয়ে দিচ্ছে ৷ 2G, 3G ছাড়িয়ে এখন 4G ধ্যান-জ্ঞান সব দিয়েছে জেন-ওয়াইও ৷ সম্প্রতি রিলায়েন্স এরকম এক পরিষেবা দেওয়া শুরু করেছে দেশের কয়েক কোটি যুবক-যুবতীদের৷ এই শহরের এক কাফেতে অনেকক্ষণ ধরে কথা বলছিল তিন জন ৷ দুটি মেয়ে একটি ছেলে৷ দেখে কলেজের ফার্স্ট ইয়ারই মনে হচ্ছিল ৷ তবে ছেলে-ছোকরার দল যা বলছিল শুনে বেশ ইন্টারেস্টিং মনে হল ৷ সঙ্গে সঙ্গে নিজের টেবিল ছেড়ে চলে গেলাম ওদের টেবিলে৷ গিয়ে প্রথমেই নিজের সাংবাদিকতার পরিচয় দিলাম ৷ বললাম, ‘তোমাদের যদি আপত্তি না থাকে এখানে বসতে পারি?’
প্রথমে শুনে বেশ খানিকটা চমকে উঠেছিল তিনজনেই ৷ এরমধ্যে আবার একটি মেয়ে প্রশ্ন করল, ‘হ্যাঁ পারেন, কিন্তু কেন’ ?
‘না মানে ইয়ে , আসলে আমার সম্পাদক মশাই একটি দায়িত্ব দিয়েছিলেন ৷ কে কোথায় আড্ডা দিচ্ছে এবং তারা কি বিষয়ে কথা বলছে, তা নিয়ে একটা কপি প্রত্যেক ১৫ দিন অন্তর আমাদের ক্যাম্পাস নামক একটি ওয়েব-ম্যাগ-এ(ওদের মতো করেই বলার চেষ্টা করেছি)প্রকাশ করা৷’ আমি বললাম৷ কথাটি শুনে খুব একটা আপত্তি করলনা কেউ ৷ বেশ আমিও চুপচাপ বসে পরলাম ঘাপটি মেরে ৷ সব কথা গিলতেই হবে ৷

প্রথমেই হোঁচট খেলাম, এদের বয়সের অনুমান আমার ভুল ছিল দেখে৷ এরা কেউই কলেজে পড়েনা৷ পামেলা সরকার ও অর্ক দে এরা আগামী বছর আইএসসি দেবে ৷ আর অন্যজন, শ্রীতমা ভট্টাচার্য ৷ সে ক্লাস ইলেভেনের ছাত্রী৷ এবার যা কানে এল…

পামেলা- দেখ আই থিংক, প্রথম প্রথম সবাই এমন ফ্রিতে দেয় ৷ কিন্তু পরে দেখবি সেই দাম বাড়িয়ে দেবে ৷
অর্ক- নারে ভুল করছিস ৷ কখনই না ৷ আমার এক কাজিন ইউএসএ-তে থাকে সেখানে গর্ভমেন্ট ফ্রিতে নেট পরিষেবা দেয় ৷ তাহলে দামা বাড়াবেনা৷ আর দাম বাডা়লে তো আরও অনেকেই আছে ৷ তারাও দেখবি নতুন কোনও স্কিম নিয়ে আসবে৷
পামেলা- হ্যাঁ এটা তুই ঠিক বলেছিস ৷ তবে একটা জিনিষ খেয়াল করেছিস ফেসবুকের ভাইরাল টা ?
শ্রীতমা- কোনটা বলত ?
পামেলা- আরে , ‘JIO’ উল্টে দিলে ‘OIL’ ৷ অর্থাৎ রিলায়েন্সের তেল ব্যবসায় যে ক্ষতি হয়েছে, তা এবার এখান থেকে তুলে নেবে ৷
এরপরেই তিন জনের মধ্যে হাসির রোল ছড়িয়ে পরে৷
শ্রীতমা- তবে আমার এখনও সিমটা তোলা হয়নি ৷ দাদাকে বলেছি তুলে দিতে ৷ হাতে পেলে কম করে তিন মাস তো ফ্রিতে নেট৷ তাপরর আমায় কে পায় ৷
সত্যিইতো নেট পরিষেবা যদি একেবারে ফ্রি হয়ে যায় , তাহলে আর কে পায় ! আর তা যদি হয়, ফোরজির মতো পরিষেবা৷